Untitled Document
 




কয়লা খনি চাই না।


এক দেশের সৈন্যের সাথে অন্য দেশের সৈন্যের সাথে গোলাগুলি
হয় কিন্তু আমি কখনো দেখিনি নিজের দেশের সৈন্য নিজের দেশের
জনগনের উপর এভাবে গুলি চালায়। (দুলাল মিয়া )
যদিও ইতিহাস অন্যকথা বলে।কিন্তু দুলাল মিয়ার সরল মনের ভাষ্য
এটি ২৬ আগষ্ট ২০০৬ ফুলবাড়িবাসীর ডাকে খনি বিরোধী ও
ফুলবাড়ি বাঁচাও আন্দোলনে যোগ দিলে তিনি (দুলাল মিয়া) গুলিবিদ্ধ
হন।পুলিশ ও বি.ডি.আর শান্তিপুর্ন আন্দোলনে গুলি চালালে ৬ জন
আন্দোলনকারীর মৃত্যু, ৫০ জনের বেশি আহত হলে আন্দোলন আরো
জোরদার হয়ে ওঠে।সরকার ১৪৪ ধারা জারি করে কিন্তু চারিদিক
থেকে মানুষ ফুলবাড়িতে জড়ো হতে থাকে।তাদের কথা একটাই
জান দেব তো বাপ দাদার ভিটে দেব না। এমতাবস্থায় সরকার জনগনের
দাবি মেনে নেওয়ার আশ্বাস দেয়।সরকার ফুলবাড়িবাসী ও অন্য জনগনের
কথা আমলে না নিয়ে এশিয়া এনার্জি নামে এক ব্রিটিশ কোম্পানির সাথে চুক্তি
করে।ফুলবাড়ি ও তার আশেপাশের জনগন যখন বুঝতে পারল খনি হলে
তাদের বাপদাদার ভিটা ধানি জমি ছেড়ে উদ্বাস্তু হতে হবে, তখন তারা
আন্দলনের ডাক দেয়।

আলোকচিত্রী - খান মাহাবুব আলম

ক্যাটালগ ডাউনলোড
১৯৭৬-৭৭ সালে তৎকালীন সময়ের  শিল্পীদের শিল্পকর্ম নিয়ে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী আয়োজন করে CONTEMPORARY ART SERIES OF BANGLADESH-2  সিরিজের LIFE IN BANGLADESH শিরোনামের প্রদর্শনী। জয়নুল আবেদীন, কামরুল হাসান, এস এম সুলতান সহ ২৯ জন শিল্পীর মোট ৩৩ টি শিল্পকর্ম নিয়ে চলে এ আয়োজন। এই প্রদর্শনীটির ক্যাটালগ নিয়ে আমাদের এবারের আয়োজন।
সংগ্রহ :
মোহাম্মদ হাসানুর রহমান
Untitled Document
 
Total Visitor : 680646
সাপলুডু মূলপাতা | মতামত Contact : shapludu@gmail.com
Copyright © Life Bangladesh Developed and Maintained By : Life Yard