Untitled Document
শ্রাবণ সংখ্যা ১৪১৮
মূলপাতা শিরোনাম বটতলা পঞ্জিকা প্রদর্শনী
মনোলগ-২
- আফরোজা সোমা



সে বলে, আমিও
আমি শুনি, সেও
মনে মনে, অনুচ্চারে- এভাবেই
ক্রমাগত গীত হয় কথা-
মানে সংলাপ;
ছায়া-সংলাপে পাশাপাশি
বসি পরস্পর, বৃষ্টির পর
গাছটি কী ভীষন সবুজ দেখায়
তাই নিয়ে কথা হয়;
রাস্তায় হাঁটার জো নেই
ফুটপাথে ভীড়-
তবুও, খুব উজ্জ্বল রোদে
ঝলমলিয়ে উঠলে
লেকের জল- ট্র্যাফিক জ্যাম
সে-ও যেনো হঠাৎ সুন্দর!-
এই সব, যাবতীয় খুচরো বিষয়
উঠে আসে সংলাপে,
আমরা এগিয়ে যাই
মনে মনে, অনুচ্চারে।

লেকের পাড়ে বসে আছে
একটি মেয়ে, সাদা জামা গায়
হাতে কলম, কোলে খোলা খাতা-
এই পথে আমি নিয়মিত হাঁটি
এমনটা চোখে পড়ে না
সচরাচর; এই ঘটনায়
তার দিকে আগ্রহে ফিরি
না চাইতেও দেখি
পাতায় লিখেছে সে:
‘আমি বসে আছি’
এটি তার প্রথম লাইন
লাইনের পর দাড়ি;
আরো যেনো কী সব লেখা-
পড়ি নি।

সে বসে আছে
আমি হাঁটছি-
আমার মাথায় সে
‘আমি বসে আছি’;
তার মাথায় রোদ
‘আমি বসে আছি’
আরো যেনো কী কী সব...
আমি পড়ি নি।

সে এবং আমি
বিচ্ছিন্ন ঘটনা মাত্র
শুধুই কাকতাল-
পরস্পর জানি না কেউ;
তেমনি আমরা- মানে
আমার সঙ্গী, ছায়াসংলাপ।
আমি ও আমার সাথী
আমরা দু’জন
দু’য়ে মিলে এক;
একের দ্বিধা, দু’য়েরো
দু’য়ে সমাধান, একেও;
তবু এই দুপুরে
রাধাচূড়া গাছের ছায়ায়
কী যেনো এক ঘটনা
কী যেনো এক খটকা
ঝুনঝুনি বাজায়,
ফেরীওয়ালার মতো
প্রলম্বিত লয়ে ফুরররররর....
শব্দে ঘোষণা করে
নিজের অস্তিত্ব;
এ দেখছি জটিলতা হলো বেশ-
যে নেই সে-ই আছে
যে আছে, সে নেই;
নারীটি ফোনে কথা বলে
বলে এই এতোক্ষণ ধরে
সে কথাই বোঝাতে চাইছে!
পাবলিক প্লেসে কে শুনছে
তাদের ফোনালাপ,
লোকে কী ভাবছে
এ নিয়ে সে মোটেও চিন্তিত নয়-
মোবাইল ফোনের ওপারে
সে প্রাণপন বোঝায় শুধু -
যে নেই, কীভাবে সে
হয়ে ওঠে এমন অস্তিত্বময়;
যে আছে, কীভাবে
সে এমন কর্পুর-
হাওয়ায় মিলায়!
শুধু টের পেতে হয়
নিতে হয় শ্বাসে টেনে
চাইলেও, হাত ভরে তুলে
রাখা যায় না পূজোর থালায়!

বায়ু বয়, অনুচ্চারে-
মনে মনে সংলাপ:
দিন কি ফুরলো বৃথা,
একাকী, একা একা-
     
Untitled Document

পুঁতিফুল
Total Visitor: 709039
সাপলুডু মূলপাতা | মতামত Contact : shapludu@gmail.com
Copyright © Life Bangladesh Developed and Maintained By :