Untitled Document
আশ্বিন সংখ্যা ১৪১৮
মূলপাতা শিরোনাম বটতলা পঞ্জিকা প্রদর্শনী
হাতিশুঁড়
ভদ্রমহিলার সঙ্গে দেখা হয়েছিল কালোকোলো, ছোটখাটো, বৈশিষ্ট্যহীন। বৈশিষ্ট্য নেই? এইসব নারীর দেখা কয়েকবার পেয়েছি। স্বামী-সন্তান সকলই আছে। সকলেই পরিচর্যা পেয়ে নিয়মমতো খুশি। স্ত্রী বা মায়ের মনের তলের খোঁজ কি তারা রাখে, না এই বৈশিষ্ট্যহীন অবয়বের নারীটিই সবাইকে তা দিতে চায়? একসময়ের দুরন্ত বিপ্লবী, এখন স্থানীয় স্কুলের শিক্ষিকা আমার ছোট ফুপুর কোচবিহারের বাসায় ছেলেকে পড়তে দিতে এসেছিলেন মহিলা, সেখানেই পরিচয়। আমি তখন ল্যাপটপে আমার তোলা ফুলের ছবিগুলো ফুপুকে দেখাচ্ছিলাম, কুশল বিনিময়ের পর ভদ্রমহিলা চুপচাপ বসে ছবি দেখতে লাগলেন। আমার ফুপু উচ্ছল প্রকৃতির, যে ছবি ভাল লাগছে খুশির ফোয়ারা ছুটিয়ে দিচ্ছে যেটা ভাল লাগছে না নাক কোঁচকাচ্ছে। পড়া হয়ে গেলে বাচ্চা নিয়ে ভদ্রমহিলা চলে গেলেন। ফুপু বললেন শ্বশুর বাসায় ভদ্রমহিলার একটাই কষ্ট, গান গাইতে পারেন না। মনে হলো সেই কষ্টটাই হয়ত তাঁর মুখে ছায়া ফেলে থাকে। তারপর আরো যে কয়েকদিন সেখানে ছিলাম প্রায় প্রতিদিনই ওনার সঙ্গে দেখা হতো। আমার তোলা নতুন নতুন ফুলের ছবি দেখতেন, খারাপ-ভাল কিছুই বলতেন না। আমার যে একটু মন খারাপ হতো না তাতে সেটা বলতে পারি না। এরকম একদিন ফুপুর বাসায় গেছি, ফুপু রাঁধতে রাঁধতে বলল, ‘সুজয়ের মা কী বলে গেল জানিস?’ সেই মহিলার ছেলের নাম সুজয়। জানতে চাই মহিলা কী এমন বলে গেল যে ফুপু আমাকে সাসপেন্সে রাখার চেষ্টা করছে।

‘বলে গেল যে ও এখন রাস্তা দিয়ে মাথা সোজা করে হাঁটতে পারে না।’

‘সে আবার কী?’

‘তোর ফুলের ছবিগুলো দেখার পরে ও নাকি বাইরে বেরোলেই মনে হয় অনেক সুন্দর সুন্দর ফুল ও মিস করে যাচ্ছে। ও খালি তাই মাটির দিকেই তাকিয়ে থাকে।’ ফুপু বকবক করে যায়, আমার চোখে ভেসে ওঠে পুরনো তামার পয়সার মতো ম্রিয়মান সুজয়ের মাকে। তিনি কি কখনও জানবেন এর চেয়ে বড় প্রশংসা আর হয় না, এ এমনই এক কথা যা আমাকেও নিজের তোলা ছবির দিকে নতুন করে তাকাতে শেখায়?

ফুপুর মুখেই শুনেছিলাম সুজয়ের মাকে সবচেয়ে মুগ্ধ করেছিল হাতিশুঁড় ফুলের ছবি। এ ফুল দিয়েই ছেলেবেলা রান্নাবাটি খেলতেন, কিন্তু এর রূপ কখনও চেখে দেখেননি। হাতিশুঁড় দিয়ে রান্নাবাটি খেলেছি আমরা অনেকেই। আর সত্যি সত্যি, ছবিতে যেন সে নতুন রূপ নিয়ে এল।
 

ছবি ও লেখা: প্রিসিলা রাজ



          আলোকচিত্রী : প্রিসিলা রাজ
 
 
Untitled Document
প্রদর্শনী

হরে রাম

video video
Copyright © Life Bangladesh
সাপলুডু মূলপাতা | মতামত Contact : shapludu@gmail.com