Untitled Document
এ্যালবাম
রাগ - হংস ধ্বনি
সংকলনঃ মোল্লা সাগর

এ মাসের এ্যালবামঃ





রাগ - হংস ধ্বনি

প্রাচীন সঙ্গীত শাস্ত্রে স্বর ও বর্ণ দ্বারা ভূষিত ধ্বনিবিশেষকে রাগ বলা হয়। এটি মানবচিত্তে এক ধরণের রঞ্জক ধ্বনির আবহ সৃষ্টি করে। ধাতুগত অর্থ করতে হলে, যে স্বর লহরী মনকে রঞ্জিত করে তাকে রাগ বলা হয়। রাগসঙ্গীত, সংগীতের মূলধারার অংশ।

রাগ, হংস ধ্বনি শুদ্ব, বিলাবল ঠাটের অন্তর্গত।
হংস ধ্বনিতে যত গুলি স্বর ব্যবহার হয়েছে তা সব গুলিই শুদ্বস্বর। শুদ্ধ সাতটি স্বর থেকে দুইটি স্বও বাদ দিয়ে এর চলন শুরু যেমন – আরোহন : সাওে গা পা নি সা।
অবরোহন : সা নি পা গা ওে, গা পা গা রে- গা রে সা।
মুখ্য অঙ্গঁ : গা পা নি, পা গা রে, গা পা গা রে, পা গা রে, ন্ িপ্ াস্।া
হংস ধ্বনি ঔরব ঔরব জাতির রাগ। হংস ধ্বনি রাতের প্রথম প্রহওে পরিবেশন করা হয়।
হিন্দুস্থান পদ্ধতির শম্ভরা রাগ হংস ধ্বনির নিকটবর্তী রাগ। কোন কোন মতে কল্যাণ ধাট।
একটৃ অন্য ভাবে যদি ব্যাখ্যা করি যেমন- (পা ও নি) কে বর্জিত করিয়া যেমন- ভ’পানি রাগের সৃষ্টি হয়েছে তেমনি (মা ও ধা) কে বর্জিত কারিয়া হংস ধ্বনির জন্ম হয়েছে। হংস ধ্বনি রাগে (গা পা নি পা ও র্সা নি পা) স্বর সমুদয় ব্যবহার হয়ে থাকে। হংস ধ্বনি চঞ্চল স্বভাবের মুলত সৃংঙ্গারার (রস)



সাপলুডুর অন্যান্য সংখ্যায় প্রকাশিত গানের সংগ্রহ
Untitled Document